বিনামূল্যে ওয়েব ডিজাইনিং কিভাবে শিখবেনঃ পরিপূর্ণ গাইডলাইন।


বিনামূলে ওয়েব ডিজাইন শেখার উৎস বা রিসোর্স গুলোর তালিকা এক নজর দেখে নিন। আপনি এই রিসোর্স গুলো থেকে শিখে ১০,০০০ থেকে ৩০,০০০ টাকা ট্রেনিং ফি খরচ থেকে নিজেকে সেভ রাখতে পারবেন।

  • w3school
  • codecademy
  • freecodecamp
  • htmldog
  • teamtreehouse
  • traversy Media youtube channel

ভূমিকাঃ

আপনি ইচ্ছা করলে বিনামূল্যেই শিখে নিতে পারেন ওয়েবসাইট ডিজাইনিং।

ওয়েব ডিজাইন কাজের জনপ্রিয়তা এখন ব্যাপক। ওয়েবসাইট ডিজাইন হচ্ছে একটি ওয়েবসাইট এর গঠন কেমন হবে তা ডিজাইন করা।

আমি যেমন আমার ওয়েবসাইট এর কোথায় কোন রং ব্যবহার করবো,কোথায় টাইটেল দিবো, কোথায় প্যারাগ্রাফ দিবো এগুলো ডিজাইন করেছি । আপনারাও এই কাজ গুলো একদম বিনামূল্যে শিখে নিতে পারেন।

আপনি ১০ হাজার ৩০ হাজার টাকা দিয়ে কোথাও ভর্তি হয়ে এই একই কাজ শিখবেন। তবে আমি এটুকু গ্যারান্টি দিচ্ছি ট্রেনিং করলে আপনি কেবল একটা গাইডলাইন পাবেন ।

ট্রেনিং সেন্টার আপনাকে ১০০ ভাগ কাজ ৩ মাস বা ৬ মাসে শিখিয়ে দিবেনা । তারা আপনাকে একটি প্রসেস ধরিয়ে দিবে এবং কিছু প্র্যাকটিস হাতে কলমে করিয়ে দিবে। এরপর আপনাকেই নিজে নিজে শিখতে হবে।

অনেকেই এত পরিমান ট্রেনিং ফি দেবার সামর্থ রাখেনা । তারাও যেনো কাজটা শিখতে পারে এজন্যই আমার আজকের এই গাইডলাইন মূলক আর্টিকেল।
বিনামূল্যে ওয়েব ডিজাইন শেখার যে কত পরিমান রিসোর্স আছে তা যদি অনেকের জানা থাকতো তাহলে হয়তো নিজে নিজেই শিখেতে পারতো কাজগুলো।


আবার অনেকে রিসোর্স জানে কিন্ত সেগুলো কিভাবে প্র্যাকটিস করবে তা বুঝতে না পেরে ট্রেনিং সেন্টার এ ভর্তি হয়।


আমি এখানে একটি কথা বলে রাখি আমি ট্রেনিং করার বিরুদ্ধে নয় । ট্রেনিং অবশ্যই করবেন যদি আপনার সামর্থ থাকে। আর যাদের সেই সামর্থ নেই তারাও যেনো কোন অংশে কম না শিখেন। সেই জন্য আজকে আমার এত আলোচনা ।


বাড়িতেই যেভাবে ওয়েব ডিজাইন কাজ শিখবেন।

  • পড়বেন, ভিডিও দেখবেন, প্র্যাকটিস করবেন প্রতিদিন।
  • আপনি নিচের কাজ গুলো প্রতি সপ্তাহে অন্তত পাঁচদিন করবেন।
  • একটি নির্ধারিত টাইমে প্রতিদিন ২ ঘন্টা করে কম্পিউটার নিয়ে প্র্যকটিস করতে বসবেন।
  • আমি যেই প্রসেসটির কথা বলব সেই প্রসেসটির প্রতিটি টপিক পড়ার পর নিজে নিজে টাইপ করে প্র্যাকটিস করবেন।


কাজ শিখতে হলে পড়তে হবে এই কথাটা মাথায় রাখবেন।

শুরুতে কি কি জেনে নিবেন।

প্রথমে ইউটিউবে সার্চ দিন
”ওয়েব ডিজাইন কি? এবং এটি শেখার জন্য কি কি বিষয় জানতে হবে।” -এটা লিখে।
আপনার সামনে অনেকগুলো চ্যানেল চলে আসবে যারা এগুলো নিয়ে ভিডিও তৈরী করে।

আপনি সেখান থেকে বেছে বেছে ২০-৩০ টি ভিডিও দেখে নিন। আপনি বেছে বেছে কিছু চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন। আর নটিফিকেশন বেলটা অন করে রাখুন।


আপনার ওয়েব ডিজাইন সম্পর্কে যখন প্রাথমিক ধারনা টুকু এসে যাবে তখন আপনি নিজে নিজে প্র্যাকটিস করার জন্য প্রস্তুত হবেন।

এখন আপনার রিসোর্স দরকার হবে। চলুন জানা যাক প্র্যাকটিস করার উৎস গুলো ফ্রি তে কোথায় পাবেন সে সম্পর্কে ।


ওয়েব ডিজাইন বিনামূল্যে শেখার দুনিয়ার সবথেকে বড় স্কুল।


w3school.com হলো পৃথিবীর সব থেকে বড় ওয়েব ডিজাইনিং শেখার স্থান। আপনি এই ওয়েবসাইটে ঢুকে ওয়েব ডিজাইনিং সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয় শিখতে পারবেন।


আর এখানে আপনি যা পাবেন তা কোনো ট্রেনিং সেন্টারে ১ বছর বার ২ বছর ট্রেনিং করেও এতগুলো টপিক কাভার দিতে পারবেন না।


এখন কথা হলো w3school.com থেকে কিভাবে কাজ শিখবেন সেই বিষয়টি।
একটু ভালো করে খোঁজাখুঁজি করুন ইউটিউবে w3school থেকে কিভাবে শিখতে হয় তা। আপনি অনেক ভিডিও পেয়ে যাবেন।

আর আপনার বাড়তি সুবিধা হলো আপনি ওখানেই নোটপ্যাড পাবেন লেখালেখি করার জন্য।
তবে এখানে কারো কারো জন্য একটি প্রবলেম হয়ে দাঁড়ায় যে এখানে সব কিছুই ইংরেজীতে লেখা ।


আপনার যখনই কোনো টপিক বেধে যাবে তখন আপনি একটা কাজ করতে পারেন।
আপনি যে টপিকটা বুঝছেন না সেটা কপি করে ইউটিউব এ সার্চ দেন তাহলে অনেক ভিডিও পেয়ে যাবেন আপনি সেখান থেকে শিখে নিতে পারবেন।


আপনার যদি আগ্রহ থাকে তবে আপনি শিখতে পারবেন এটা গ্যারান্টেড। আপনার আগ্রহ এবং ইচ্ছাই সব। প্রতিদিন শিখুন একটু একটু করে।


একদিনেই হফেজ হতে যাওয়া মটেও উচিত হবেনা।
এমন অনেকে আছেন যারা শখের বশে দু চারদিন কাজ শিখে তারপর ছেড়ে দেন।

সহজে সফলতার কোন পথ নেই। পরিশ্রম আপনাকে করতেই হবে।
আপনি প্রতিদিন একটু একটু করে w3school থেকে শিখুন পড়ে পড়ে আর কিছু বেধেঁ গেলে তবে ইউটিউব এর সহায়তা নিন।


তবে যদি এমন হয় যে আপনি কোন একটি টপিক নিয়ে নির্দিষ্ট কোনো প্রশ্ন জানতে চান তাহলে আপনি ফেসবুকে বিভিন্ন ওয়েব ডিজাইনিং এর গ্রুপ খুঁজে পাবেন সেখানে যোগদান করে প্রশ্ন করুন। আপনি কোয়েরাতে ও প্রশ্ন করতে পারেন। সেখানেও উত্তর পাবেন।


শেখার যদি আগ্রহ আপনার থাকে আপনাকে কোথাও ভর্তি হবার দরকার পড়বেনা। আপনি নিজেই শিখতে পারবেন যদি একটু চেষ্টা করেন।


রিসোর্স ২: কোড এ্যাকাডেমি


কোড এ্যাকাডেমি তে আপনি বিনামূল্যে অনেক শেখার রিসোর্স পাবেন। আপনি যখন কোনো টেনিং সেন্টারে ভর্তি হবেন তখন আপনাকে যা যা শিখাবে তার থেকে অনেক বেশি পরিমাণ রিসোর্স আপনি কোড এ্যাকাডেমিতে পেয়ে যাবেন।


সুতরাং আপনি রেগুলার ওয়েব ডিজাইন শিখতে আগ্রহী হলে কোড এ্যাকাডেমিতে অনেক হেল্প পেয়ে যাবেন। আর এখান থেকে প্র্যাকটিসও করে নিতে পারবেন।


কোড এ্যাকাডেমির সবগুলো কোর্স আপনি করতে পারেন । শর্ত একটাইা যে এর সবগুলো কোর্স আপনি ফ্রী তে পাবেন না । এখানে ফ্রী যে কোর্সগুলো আছে আপনি সবগুলো করে নিবেন। এটাই আপনার জন্য অনেক কাজে আসবে।


রিসোর্স ৩: ফ্রি কোড ক্যাম্প


ফ্রি কোড ক্যাম্প এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি ওয়েব ডিজাইনিং এর যাবতীয় খুঁটিনাটি সব কিছু শিখে নিতে পারবেন।


এখানে সবগুলো কোর্স অনেক সুন্দর করে দেয়া আছে আপনার যেগুলো প্রয়োজন আপনি সেগুলো প্র্যাকটিস করে নিবেন।


আপনি এখানে আপনার কোর্স শেষ করলে একটি সার্টিফিকেট ও পাবেন।
তাহলে আর বসে থাকা কেনো? শেখা শুরু করে দিন আজ থেকেই।


এই সাইট টি বিভিন্ন ডোনার দের অর্থের উপর ভিত্তি করে পরিচালিত হয়।

আপনি আপনার ওয়েব ডিজাইনিং শেখার অনেক হেল্পফুল টিপস সহজেই এখান থেকে নিতে পারবেন।


রিসোর্স ৪: এইচটিএমএল ডগ


এইচটিএমএল ডগ হচ্ছে এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি আপনার অতি প্রয়োজনীয় এবং সবথেকে বেশি ব্যবহ্নত কোড গুলো আপনি শিখে নিতে পারবেন।


HTML,CSS, JAVASCRIPT এগুলো সবই আপনি এই সাইটটিতে পাবেন। আপনার হাতের কাছে এসব রিসোর্স গুলো বুকমার্ক করে রেখে দিন ।


আর প্রতিদিন একটু একটু করে প্র্যাকটিস করতে থাকুন।
কোন কোড যদি বুঝতে না পারেন তাহলে আপনি বিভিন্ন প্রশ্ন উত্তর ফোরাম এর সহায়তা নিন।

ইউটিউব,গুগোল এ খুঁজে দেখুন। আপনি অবশ্যই আপনার উত্তর পেয়ে যাবেন!
একটা কথা মনে রাখুন উন্নত বিশ্ব গুলোতে এগুলো শিখতে খুব অল্প মানুষই ট্রেনিং করে। তারা অধিকাংশই এই ওয়েবসাইট গুলোর হেল্প নিয়ে শিখে।


রিসোর্স ৫: টিমট্রিহাউস


টিমট্রিহাউস এমন একটি ওয়েবসাইট যেটা আপনার ওয়েব ডিজাইনিং শেখার মাত্রাটাকে আরো একধাপ শাণিত করবে।


আপনি টিমট্রিহাউস ভিজিট করে অনেক প্রয়োজনীয় টিপস এবং টিউটোরিয়াল একদম ফ্রিতে করতে পারবেন।


রিসোর্স ৬: ট্রেভার্সি মিডিয়া ইউটিউব চ্যানেল


ট্রেভার্সি মিডিয়া ইউটিউব চ্যানেল এমন একটি চ্যানেল যেখানে আপনি আপনার ওয়েব ডিজাইনিং এর জন্য যে যে ভিডিও গুলো দরকার তার সবই এখানে খুঁজে পাবেন।

এটাতে আপনি ইচ্ছা করলে সাবস্ক্রাইব করে রাখতে পারেন।


খুবই দরকারী একটি ইউটিউব চ্যানেল এটি। আপনি আপনার যা যা দরকার সেই ভিডিও গুলো এখান থেকে দেখে নিবেন।


এরপরও যদি আপনি কিছু না বোঝেন তাহলে বাংলাদেশি কিছু ইউটিউব চ্যানেল খুঁজে বের করবেন এবং সেখান থেকে শিখে নিবেন সব কিছু। আমি এখানে নির্দিষ্ট কোনো চ্যানেলের নাম বলছি না।

আপনার আপনাদের পছন্দ মত সার্চ করে বাংলাদেশী ওয়েব ডিজাইন সংক্রান্ত চ্যানেল গুলো সাবস্ক্রাইব করে রাখবেন।

অনলাইন রিসোর্স গুলো থেকে শেখার বাড়তি সুবিধাগুলো

  • আপডেটেড তথ্য পাবেন।
  • ট্রাস্টেড এন্ড হিউজ রিসোর্স।
  • হেল্প এবং ফোরাম এ প্রশ্ন করতে পারবেন।
  • যখন খুশি তখন শিখতে পারবেন।
  • বাড়তি কোনো ফি লাগবেনা।
  • শেখার পাশাপাশি প্র্যাকিটিস ও করে নিতে পারবেন সাথে সাথে।


অনলাইন রিসোর্স থেকে শিখতে যে বাধাঁগুলো আপনার সামনে আসতে পারে।


আপনি কোন টপিকটি আগে বা পরে শিখবেন এটা বুঝতে প্রবলেম হতে পারে।


ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে আপনার কষ্ট হতে পারে। যেমন ট্রেনিং করলে আপনার টাকা যেহেতু খরচ হয় সেই টাকার মায়াতেও আপনিও শেখায় মনোযোগ দিতেন। কিন্তু এখানে যেহেতু টাকা লাগেনা তাই আপনার কাজ শেখার উপর ধারাবাহিক মনোযোগ নাও থাকতে পারে ।


তবে আমি আশা করছি কাজ শিখার জন্য যারা খুবই সিরিয়াস তারা উপরের রিসোর্স গুলো থেকে সবথেকে সেরা বেনিফিট নিতে পারবেন।


শেষকথা:

ওয়েব ডিজাইন এর কাজের অনেক ভালো চাহিদা বর্তমানে রয়েছে । যারা নতুন এই কাজটি শিখতে চাচ্ছে তারা তাদের জন্য আমার পরামর্শ হলো, এই কাজ শিখতে ধৈর্য প্রয়োজন হবে।


সুতরাং একটু পরিশ্রম করে শিখে নিলে আপনার আয় রোজগারের জন্য অনেক পথ উন্মুক্ত হয়ে যাবে। আপনি দেশে এবং বিদেশে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বা লোকাল মার্কেট গুলোতে জব করতে পারবেন।


আমার কোন কথা যদি আপনাদের বুঝতে এতটুকু কষ্ট হয় নিচে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। আজ এই পর্যন্তই । আপনারা সবাই ভালো থাকুন এবং অন্যকে ভালো রাখুন। ধন্যবাদ।

বিনামূল্যে ওয়েব ডিজাইনিং কিভাবে শিখবেনঃ পরিপূর্ণ গাইডলাইন।
বিনামূল্যে ওয়েব ডিজাইনিং শেখার গাইডলাইন।

frlmamun

আমি এফ. আর. আল-মামুন । আমারহাট ডট কম ওয়েবসাইটের প্রতিষ্ঠাতা । আমি সৃষ্টিশীল কাজ করতে পছন্দ করি এবং যারা সৃষ্টিশীল কাজ করে তাদেরকে ভালোবাসি । আপনিও যদি সৃষ্টিশীল কিছু করতে চান তাহলে আপনিও আমারহাটে আমন্ত্রিত!!! ধন্যবাদ।

Leave a Reply